সাগরবাণীপ্রথম ট্রায়ালে সফল ‘বিএনটি১৬২বি১’ ভ্যাকসিন - সাগরবাণী প্রথম ট্রায়ালে সফল ‘বিএনটি১৬২বি১’ ভ্যাকসিন - সাগরবাণী

প্রথম ট্রায়ালে সফল ‘বিএনটি১৬২বি১’ ভ্যাকসিন

প্রকাশ: ২০২০-০৭-০২ ১২:২৩:০৩ || আপডেট: ২০২০-০৭-০২ ১২:২৪:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

জার্মানির বায়োএনটেক ও যুক্তরাষ্ট্রের ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট ফাইজারের যৌথ চেষ্টায় উৎপন্ন করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনটি মানুষের শরীরে প্রাথমিক ট্রায়ালে ইতিবাচক ফল এসেছে গবেষকেরা দাবি করেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

ভ্যাকসিনটির নাম ‘বিএনটি১৬২বি১’। ট্রায়ালে যাদের শরীরে ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করা হয় তাদের শরীরে রক্ত ও রক্ত রসে পর্যাপ্ত পরিমাণে অ্যান্টিবডি তৈরি হতে দেখা গেছে বলে জানিয়েছেন বায়োএনটেকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা উগুর সাহিন।

প্রাথমিক তথ্য-উপাত্তে দেখা যায়, ভ্যাকসিনটি বিষাক্ত হয়। করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার জন্য ভ্যাকসিনটি শরীরের ইমিউন সিস্টেমকে মজবুত করে তোলে।

প্রথম ধাপের ট্রায়ালে ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী ৪৫ জন সুস্থ ব্যক্তির শরীরে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল। তাদের দুটি দলে ভাগ করে ২৪ জনকে ২১ দিনের ব্যবধানে দুটি ডোজ দেওয়া হয়। বাকিদের দেওয়া হয় কম ডোজ।

এরপরে তাদের শারীরিক পরিবর্তন পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। তাতে দেখা যায়, যাদের বেশি ডোজে ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ দেওয়া হয়েছিল তাদের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হতে শুরু করেছে। শুধু তাই নয় অ্যান্টিবডির পরিমাণও বেশি।

দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার পর ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের শরীরে কিছুটা জ্বর বোধ লক্ষ্য করা গেছে। তবে সেটা অপ্রত্যাশিত ছিল না বলে জানিয়েছেন গবেষকেরা। জ্বরের এই মাত্রা উদ্বেগজনক কিছু নয় বলে দাবি তাদের।

দ্বিতীয় পর্যায়ে আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। তৃতীয় পর্যায়ে অন্তত ৩০ হাজার জনকে ভ্যাকসিন দেওয়ার বৃহত্তর পরিকল্পনা রয়েছে।

প্রথম ট্রায়ালের সাফল্য দেখেই ভ্যাকসিনের ডোজ তৈরি শুরু হয়েছে। প্রথম ধাপে ১০ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ তৈরি হবে। চূড়ান্ত পর্যায়ে সাফল্য এলে আগামী বছরের মধ্যে ১২০ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ তৈরি করা হবে বলে জানিয়েছেন ফাইজারের ভ্যাকসিন রিসার্চ বিভাগের প্রধান ক্যাথরিন জনসেন।

Visits: 33

ট্যাগ :

নামাজের সময় সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৮
  • ১১:৫৮
  • ১৬:৩২
  • ১৮:৩৫
  • ১৯:৫৭
  • ৫:১৮