সাগরবাণীপ্রদীপ-লিয়াকত-নন্দকে নিয়ে মেরিন ড্রাইভের ঘটনাস্থলে র‍্যাব - সাগরবাণী প্রদীপ-লিয়াকত-নন্দকে নিয়ে মেরিন ড্রাইভের ঘটনাস্থলে র‍্যাব - সাগরবাণী

প্রদীপ-লিয়াকত-নন্দকে নিয়ে মেরিন ড্রাইভের ঘটনাস্থলে র‍্যাব

প্রকাশ: ২০২০-০৮-২১ ১৯:৪৩:৪৫ || আপডেট: ২০২০-০৮-২১ ১৯:৪৩:৪৫

সাগরবাণী ডেস্ক:

দায়িত্বে থাকা কালে নিজেদের তৈরী গল্পের মতো ইয়াবা কিংবা অস্ত্র উদ্ধার নয়, সাবেক মেজর সিনহাকে গুলি করে হত্যার বিবরণ পেতে সিনহা হত্যা মামলায় রিমান্ডে থাকা মূল ৩ আসামি বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী ও এসআই নন্দদুলাল রক্ষিতকে মেরিন ড্রাইভের ঘটনাস্থল বাহারছড়ার শামলাপুর চেকপোস্টে নিয়েছে র‍্যাব।

শুক্রবার (২১ আগস্ট) দুপুর সোয়া ১টার দিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) র‍্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম তাদের নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেন।

সিনহা হত্যায় গুলি করার ঘটনার বিস্তারিত ব্যাখ্যা শুনতেই তাদের ঘটনাস্থলে নেয়া হয় বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) তোফায়েল মোস্তফা সারওয়ার বলেছেন, মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদকে গুলি করার ঘটনা দুই মিনিটের মধ্যেই ঘটে। সেই দুই মিনিটের মধ্যে কি এমন ঘটেছিল কেন তাকে গুলি করা হলো- সে প্রশ্নের উত্তর খোঁজা হচ্ছে। অভিযুক্তদের সাথে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সাবেক ইনচার্জ লিয়াকত আলী ও এসআই নন্দ দুলাল মেজর (অব.) সিনহা হত্যায় কে কতটুকু দায়ি তা নির্ণয়ে প্রধান অভিযুক্তদের ঘটনাস্থলে নিয়ে যায় মামলার তদন্ত সংস্থা র‌্যাব। রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া আসামিদের বক্তব্যের সঙ্গে আলামতগুলো মিলিয়ে দেখতে এ প্রক্রিয়া হাতে নিয়েছে বলে দাবি র‌্যাবের।

র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) তোফায়েল মোস্তফা সারওয়ার গণমাধ্যমকে বলেন, আসামীদের কথা বলে এটা নিশ্চিত যে, সিনহা হত্যা ১-২ মিনিটে সংগঠিত হয়েছে। এ অল্প সময়ে এমন কি ঘটেছিল তা জানতে এ সময়ে গাড়ি চেক করা, পরিচয় জানতে চাওয়া, কোন অবস্থার প্রেক্ষিতে গুলিটা হয়েছিল তা বের করতে প্রতিটা সেকেন্ডকে বিশ্লেষণ করছি আমরা। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরো বলেন, আইও বিসয়টি সম্পর্কে ঋদ্ধ হতে আসামীদের দেখানো মতে সবকিছু খুঁটিয়ে দেখেছেন। ১-২ মিনিটে ফায়ারিং পর্যন্ত চলে যাওয়ার ঘটনা কোন প্রেক্ষিতে হয়েছে তা বুঝতে চেকপোস্ট থেকে চেকিং পয়েন্ট, বেরিকেট থেকে গাড়ির দূরত্ব, প্রত্যক্ষদর্শীদের দূরত্ব সবকিছু পরিমাপ করেছে। এর মাধ্যমে আইও তার একটি কনসেপ্ট ডেভলাপ করবে। যেহেতু এটি সেনসিটিভ বিষয় তাই হুট করে কিছু বলা যাবে না। আমরা ডিটেইলসে যাচ্ছি, কেন ফায়ারিং হয়েছে তা তুলে আনার চেষ্টা করছি। আসামি লিয়াকতের কথা যদি সত্যি হয় তবে, কি ঘটনায় সিনহা পিস্তল তাক করলো, এবং লিয়াকত গুলি করলো সব বিষয় বের করার চেষ্টা করছি। তবে অনেক কথা তদন্তের স্বার্থে বলা সম্ভব হচ্ছে না বলে উল্লেখ করেন তিনি।

র‌্যাবের একটি সূত্র জানায়, ওসি প্রদীপ কুমার জিজ্ঞাসাবাদে সিনহা হত্যাকাণ্ডের দায় চাপাতে চেয়েছেন লিয়াকতের ওপর। তবে ঘটনার আগে ও পরে লিয়াকতের সঙ্গে তার ফোনকলের অডিও রেকর্ড শোনানো হলে চুপসে যান প্রদীপ। পরে লিয়াকত ও প্রদীপকে সামনাসামনি এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তখন দু’জনই ঘটনায় নিজেদের সংশ্নিষ্টতা নিয়ে বিস্তারিত বিবরণ দেন তদন্ত কর্মকর্তার কাছে। সেসব বিষয় প্রত্যক্ষ করাতে সিনহা হত্যা মামলার তিন শীর্ষ আসামি প্রদীপ কুমার দাশ, লিয়াকত আলী এবং এসআই নন্দ দুলাল রক্ষিতের রিমান্ডের চতুর্থ দিনে তাদের ঘটনাস্থলে নেয়া হয় শুক্রবার।

তবে তদন্ত কর্মকর্তা এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ এর আগে সাংবাদিকদের বলেন, সিনহা হত্যা মামলায় রিমান্ডে থাকা আসামিরা চাঞ্চল্যকর ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। মামলাটি অত্যন্ত স্পর্শকাতর, গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ। তাই অত্যন্ত সতকর্তা ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে তদন্ত কার্যক্রম এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে এ মামলায় ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই হত্যা মামলার গুরুত্বপূর্ণ আসামি প্রদীপ কুমার দাশ, লিয়াকত আলী, নন্দ দুলাল রক্ষিতসহ গ্রেপ্তার অন্যান্য আসামিকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ, প্রত্যক্ষদর্শীর বক্তব্য, আলামতসহ সংশ্নিষ্ট সবকিছু যাচাই-বাছাই করে মামলাটির তদন্ত কার্যক্রম এগিয়ে চলছে।

আশিক বিল্লাহ বলেন, সিনহার বোনের মামলার ৯ আসামির মধ্যে সাতজন গ্রেপ্তার হয়েছে। বাকি দু’জনের পরিচয় শনাক্তের জন্য পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আবেদন করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

টেকনাফ থানা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ গায়েব প্রসঙ্গে র‌্যাবের মিডিয়াপ্রধান বলেন, অঘটন ঘটলে যে কেউ এমন ঘটনা ঘটায়। থানার সিসিটিভি ফুটেজ গায়েবও এমন ঘটনা। সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়ার জন্য আমরা আদালতের কাছে আবেদন করেছি। আশা করছি, তা-ও পেয়ে যাব।

গাড়ি ও অন্যান্য আলামত র‌্যাবকে হস্তান্তর :

হত্যাকাণ্ডের সময় মেজর (অব.) সিনহার ব্যবহৃত ব্যক্তিগত গাড়িটি র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। গাড়ি থেকে জব্দ অন্য আলামতও র‌্যাবকে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ সুপারের অফিস থেকে বুধবার রাতে র‌্যাবের কাছে গাড়ি ও এসব মালপত্র হস্তান্তর হয়েছে বলে সংশ্নিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

এছাড়াও ল্যাপটপ, নগদ টাকাসহ ২৯ সরঞ্জামও ব্যাবের কাছে হস্তান্তর করেছে রামু থানা পুলিশ। মেজর সিনহা হত্যাকান্ডের পর রামু উপজেলার হিমছড়িস্থ নীলিমা রিসোর্ট থেকে এসব উপকরণ উদ্ধার করা হয়।

এরআগে, ১৯ আগস্ট (বুধবার) র‌্যাবের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে এ সংক্রান্ত আদেশ দেন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ এর বেঞ্চ। এরপর বৃহস্পতিবার পুলিশের পক্ষ থেকে বিচারিক হাকিম হেলাল উদ্দিনের আদালতে আবেদন করা হয়েছিল জব্দ করা ইলেকট্রনিকস ডিভাইসগুলো তাদের হেফাজতে রাখতে। কিন্তু বিচারক পুলিশের আবেদন খারিজ করে বিচারক তামান্না ফারাহ’র আদেশটি বহাল রাখেন। সেই আদেশ অনুবলে ডিভাইসগুলো রাতেই গ্রহণ করতে যায় তদন্তকারি সংস্থার কর্মকর্তা।

র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিমান চন্দ্র কর্মকারের নেতৃত্বে র্যাবের একটি প্রতিনিধি দল বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২ টায় রামু থানা থেকে এসব মালামাল গ্রহণ করেন।

এসময় রামু থানার ওসি আবুল খায়ের উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে সকল মালামাল ব্যাবের তদন্তকারি কর্মকর্তাকে হস্তান্তর করতে রামু থানা পুলিশকে আদেশ দিয়েছেন আদালত। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (আদালত নম্বর-১) রামু’র এর বিজ্ঞ বিচারক মোহাং হেলাল উদ্দিন বৃহস্পতিবার ২০ আগস্ট এ আদেশ দেন।

র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিমান চন্দ্র কর্মকার জানিয়েছেন, ল্যাপটপ, মোবাইল, হার্ডডিস্ক, ২ লাখ টাকাসহ ২৯ প্রকার মালামাল আদালতের আদেশের প্রেক্ষিতে র্যাবের কাছে হস্তান্তর হয়েছে। এসব ডিভাইস ব্যবহৃত হয়েছে কিনা তা পরে তদন্ত সাপেক্ষে জানানো হবে। এনিয়ে কোন তথ্য গোপন রাখা হবে না।

গত ৩১ আগস্ট মেজর (অবঃ) সিনহা মেঃ রাশেদ খানকে হত্যা করার পর রামুর খুনিয়াপালং হিমছড়ি এলাকায় মেরিন ড্রাইভ রোডের নীলিমা রিসোর্ট থেকে স্টামফোর্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্রী শিপ্রা রানী দেবনাথ কে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরে রামু থানা পুলিশ তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দিয়ে চালান দেয় (যার নম্বর : জিআর-৩১১/২০২০ (রামু))। শিপ্রা রানী দেবনাথকে গ্রেপ্তারের সময় তার কক্ষ থেকে উদ্ধার করা ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস সমুহ এ মামলার জব্দ তালিকায় আনা হয়নি। পরে রামু থানা কর্তৃপক্ষ পৃথক আর একটি জব্দ তালিকা তৈরি করে এবং জিডি মূলে বিবিধ ১/২০২০ নম্বর মামলা রুজু করে শিপ্রার ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস ও অন্যান্য মালামাল রামু থানার এই মামলার আইও এসআই শফিকুল ইসলাম এর হেফাজতে রাখে।

রামু থানার জিআর-৩১১/২০২০ নম্বর মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব র‍্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিমান চন্দ্র কর্মকারকে দেওয়া হলে তিনি রামু থানা কর্তৃক শিপ্রার জব্দকৃত সকল মালামাল তাঁর হেফাজতে আনার জন্য ও বিবিধ ১/২০২০ নম্বর মামলাটির তদন্তভার নিতে আদালতে আবেদন করেন। বৃহস্পতিবার আদালতে শুনানীকালে রামু থানার বিবিধ ১/২০২০ নম্বর মামলার আইও শফিকুল ইসলাম র‍্যাবের এই আবেদন এর বিরোধিতা করে মালামাল তার হেফাজতে রাখতে ও বিবিধ ১/২০২০ নম্বর মামলাটি তার মাধ্যমে তদন্ত অব্যাহত রাখার অনুমতি দিতে আবেদন জানান। শুনানীর সময় আদালত রামু থানার আইও শফিকুল ইসলাম এর কাছে একটি মামলায় কেন ২ টি জব্দ তালিকা তৈরি করে বিবিধ মামলাটি কেন সৃজন করা হলো- এমন প্রশ্ন করলে ইনস্পেক্টর শফিকুল ইসলাম এর কোন সদুত্তর আদালতে দিতে পারেননি। পরে আদালত উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে শিপ্রা রানী দেবনাথকে গ্রেপ্তারের সময় তার কক্ষ থেকে উদ্ধার করা ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস সহ সকল মালামাল হস্তান্তর করতে ও বিবিধ ১/২০২০ নম্বর মামলার তদন্তভার জিআর-৩১১/২০২০ (রামু) নম্বর মামলার বর্তমান আইও র‍্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিমান চন্দ্র কর্মকারকে দেওয়ার জন্য আদেশ দেন। একই সাথে বিবিধ ১/২০২০ নম্বর মামলা ও শিপ্রার মালামাল সমুহ তার কাছে রাখার জন্য রামু থানার ইনস্পেক্টর শফিকুল ইসলামের করা আবেদনটি আদালত খারিজ করে দেন।

সময় পেল তদন্ত কমিটি :

সিনহার মৃত্যুর ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পেশ পিছিয়ে যাচ্ছে। ২৩ আগস্ট প্রতিবেদন দেয়ার কথা থাকলেও এখনও সাবেক ওসি প্রদীপকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেননি তারা। তাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আরও সাত দিন সময় চেয়েছে কমিটি। মন্ত্রণালয় এ আবেদন মঞ্জুর করেছে।

তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক চট্টগ্রামের বিভাগীয় অতিরিক্ত কমিশনার মিজানুর রহমান বলেন, আসামিদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ একজন ওসি প্রদীপ কুমারকে এখনও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি। এ জন্য অন্তত আরও এক সপ্তাহ সময় প্রয়োজন। এ ঘটনার বিচার-বিশ্নেষণ করে আগামীতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঠেকাতে কমিটি সুপারিশ দেবে বলেও জানান তিনি।

Visits: 130

নামাজের সময় সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৮
  • ১১:৫৮
  • ১৬:৩২
  • ১৮:৩৫
  • ১৯:৫৭
  • ৫:১৮